গ্যাস কাটার দিয়ে এটিএম ভেঙে ১৩ লাখ রুপি চুরি

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: কলকাতায় গ্যাস কাটার দিয়ে এটিএম বুথ ভেঙে ১৩ লাখ রুপি চুরির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ভোরে পূর্ব কলকাতার তিলজলায় এ ঘটনা ঘটে। গ্যাস কাটার দিয়ে এটিএম যন্ত্রটি কাটার সময় আগুন ধরে যায় কাউন্টারে।

তবে স্থানীয় শ্যামপুকুর থানা পুলিশ জানিয়েছে, তাদের তৎপরতায় দুষ্কৃতকারীরা ভাঙতে পারেনি এটিএম। এর পেছনে হরিয়ানার কুখ্যাত এটিএম লুটের গ্যাং আছে বলেই ধারণা পুলিশের। রাস্তার একটি সিসিটিভি ফুটেজে তিনজনকে দেখা গেছে। তার ভিত্তিতেই চলছে তদন্ত।

পুলিশ জানিয়েছে, ভোরে তিলজলার সিএন রায় সড়কের একটি এটিএম থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। দেখা যায়, এটিএম যন্ত্রে আগুন লেগেছে। খবর দেয়া হয় দমকলকে। দমকলের ইঞ্জিন এসে আগুন নেভায়।

খবর পেয়ে দুপুরে ওই বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। তাদের দাবি, এটিএম যন্ত্রটি ভেঙে ১৩ লাখ রুপি নিয়ে গেছে দুষ্কৃতকারীরা।

জানা গেছে, তিন বা তার থেকে বেশি সংখ্যক দুষ্কৃতী একটি গাড়িতে করে ওই এটিএমে আসেন। ওই সময় এটিএম বুথে নিরাপত্তারক্ষী ছিলেন না। প্রথমে মুখ ঢেকে ভেতরে ঢুকে তারা সিসিটিভি ক্যামেরা নষ্ট করে দেয়। এরপর গ্যাস কাটারের সাহায্যে যন্ত্রটি কেটে ১৩ লাখ রুপি হাতিয়ে নেয় তারা।

একটি সিসিটিভিতে দেখা গেছে, তিন দুষ্কৃতী একটি গাড়িতে উঠছে। তাদের সঙ্গে রয়েছে গ্যাস কাটার। ওই গাড়িটির সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ। পুলিশের ধারণা, গ্যাস দিয়ে কাটার সময়ই যন্ত্রে আগুন ধরে যায়।

গোয়েন্দা পুলিশের মতে, হরিয়ানার গ্যাস কাটার গ্যাং সম্প্রতি কলকাতা ও তার আশপাশে হানা দিতে শুরু করেছে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যসহ ভারতের বিভিন্ন জায়গায় এটিএম লুট করেছে তারা।

২০১৬ সালে উত্তর কলকাতার সিঁথি এলাকায় একটি এটিএম ভাঙার চেষ্টা হয়েছিল। তখন উত্তর শহরতলীর গ্যাস কাটার দিয়ে একটি এটিএম ভেঙে বেশ কয়েক লাখ রুপি লুট করে পালায় দুষ্কৃতীরা।

কিছুদিন আগে শহরতলীর এটিএমে হামলা চালায় তারা। এরপর ফের কলকাতার এটিএমে লুঠপাটে সফল হলো এই গ্যাং। চার বছর আগে লালবাজারের গোয়েন্দারা এটিএম লুটের গ্যাংয়ের সঙ্গে যুক্ত এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।